কার জন্য, কীসের জন্য দুনিয়ার পিছনে ছুটছেন?

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেটঃ অক্টোবর ৩১, ২০২২ | ১০:০৫
ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেটঃ অক্টোবর ৩১, ২০২২ | ১০:০৫
Link Copied!
কার জন্য,কিসের জন্য দুনিয়ার পিছনে ছুটছেন?

আপনি কি ভাবছেন মারা গেলে মানুষ আপনাকে মনে রাখবে? আমরা সচরাচর তাই ভাবি। কিন্তু এটা মহা ভুল ভাবনা আমাদের। বাস্তবতা হচ্ছে, মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কান্নার শব্দ পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে। অন্তিম বিদায় দিতে আসা লোকদের মধ্যে কেউ কেউ ফোনে কারোর সঙ্গে বকবক করতে ব্যস্ত থাকবে। আবার কেউ ফেসবুকে আপনার জানাজার ছবিযুক্ত পোষ্ট দিতে মশগুল থাকবে। আবার দূরে জটলা পাকিয়ে কিছু লোক সংসার, ব্যবসা, খেলা, রাজনীতি এইসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে থাকবে।

আপনার মৃত্যুতে শোকাহত স্বজনদের খাওয়াতে আর ছেলেমেয়ের দেখাশোনা করতে ব্যস্ত হয়ে পড়বে পরিবার। কিছু পুরুষ চা খেতে উশখুশ করবে। ব্যবস্থা নেই দেখে বাইরের দোকানে চলে যাবে। কোনো আত্মীয় বা বন্ধু আপনার ছেলে বা মেয়ের কাছে ফোন করে শোক বার্তা জানাবে। পরের দিন রাতে খাওয়ার পর কিছু আত্মীয়ের সংখ্যা কমে যাবে, কিছু লোক আবার রান্নায় লবণ কম ছিল এই নিয়ে বিরক্ত হবে। আর এভাবেই ধীরেধীরে কমতে থাকবে ভিড়।

 পরবর্তী কয়েক দিন আপনার ফোনে কিছু কল আসতে পারে আপনি মারা গেছেন এটা না জানার কারণে। আপনার অফিস, আপনার ব্যবসা আপনার পরিবর্তে কাউকে রাতারাতি খুঁজে নেবে। সপ্তাহখানেকের মধ্যেই আপনার ছেলে, মেয়ে নিজের নিজের পড়াশোনার জগতে, কর্মক্ষেত্রে বা নিজ-নিজ বাসস্থানে চলে যাবে। মাস শেষ হতে না হতেই আপনার জীবনসঙ্গী কোনো কমেডি শো দেখে আবার হাসতে থাকবে। সবার জীবন আবার স্বাভাবিক নিয়মে চলবে। আপনাকে এই পৃথিবীর মানুষজন আশ্চর্য গতিতে ভুলে যাবে।

বিজ্ঞাপন

এভাবেই একটি বছর অতিবাহিত হওয়ার পর বেশ ঘটা করে আপনার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হতে পারে। বছর পার হলে আর আপনার সম্পর্কে কথা বলার, আলোচনা করার কেউ থাকবে না। আপনি চিরকালের জন্য মুছে গেলেন। সবার মন থেকেও। সবাই যখন আপনাকে দ্রুত ভোলার প্রতিযোগিতায় লড়ছে, তাহলে আপনি আপনি উন্মাদের মতো কিসের জন্য এতো দৌড়াচ্ছি? কেন এতো চিন্তা করছেন দিন-রাত? আপনি কি এসব করতেই পৃথিবীতে এসেছিলেন? এটাই কি ছিল আপনার নাতিদীর্ঘ জীবনের আসল লক্ষ্য? আপনি কি আপনার একমাত্র জীবনে পরিবার, পরিজন, আত্মীয়, বন্ধুদের সুখের জন্য, তাদের সন্তুষ্ট করতেই জন্ম নিয়েছিলেন? 

আরো পড়ুন:  জামালপুর আ.লীগের কমিটি থেকে অব্যাহতি ডাঃ মুরাদকে

বিশ্বাস করুন, কারোর জন্য কোনোদিন কিছু থেমে থাকে না। কিচ্ছু না। আপনি না থাকলেও সব স্বাভাবিক চলবে। কোনো ব্যথাই চিরকালীন নয়। কেউ মনেও রাখে না। জীবন একবারই আসে। তাই স্বাভাবিক জীবন নিয়ে বাঁচতে শিখুন। সহজ সরল পথে চলুন। মনে রাখবেন, যে বিমানে চরে বিদেশ গেছেন। সেই বিমানে একদিন আপনার মরদেহ আসতে পারে। কোনো একদিন হয়ত এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হবো আপনি আমি, ফিরবে না কোনো প্রিয়জন। হারিয়ে যাবে বন্ধন। তাই, প্রবাসে যতটুকু সময় একত্রে কাটানোর সুযোগ পান, সেটা মান, অভিমান ভুলে আনন্দে, শান্তিতে কাটান। হিংসা বিদ্বেষ ভুলে আসুন সবাই ভালো থাকি।


আরো পড়ুন:

বিজ্ঞাপন

ওমানে সিগারেট সেবনে নতুন নিষেধাজ্ঞা

নোয়াখালীতে ওমান প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

দীর্ঘমেয়াদী চুক্তিতে ওমান থেকে আনা হচ্ছে এলএনজি

বিদেশগামী কর্মীদের জন্য নতুন নিয়ম চালু করলো সরকার

সৌদিতে কর্মী পাঠাতে জটিলতা, নিতান্তই ভুল বোঝাবোঝি বললেন


আরো দেখুনঃ

শীর্ষ সংবাদ:
ইসলামি গানের মডেল হলেন মিশা সওদাগর মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম দেশ হিসেবে কাল চাঁদে যাচ্ছে আমিরাত ঢাকায় বসছে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা, অংশ নেবে ওমান হেলিকপ্টারে করে প্রবাসীকে হাসপাতালে নিল ওমানের বিমান বাহিনী গুজবে কান না দিতে প্রবাসীদের আহ্বান জানালো দূতাবাস ওয়ার্ক পারমিট নবায়নে নতুন নির্দেশনা জারি করলো ওমান নিখোঁজ হওয়ার ২ মাস পর লাশ উদ্ধার করেছে ওমান পুলিশ যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বগুড়ায় বিমানের জরুরি অবতরণ ‘চুরির অভিযোগে দুই হাত কেটে ফেলবে সৌদি পুলিশ, দ্রুত টাকা পাঠাও’ দুবাইয়ে হচ্ছে ১০২ তলা ‘শহর’ মরু এলাকায় তুষারপাত ঘটিয়ে তাক লাগিয়ে দিলেন প্রিন্স সালমান বিকাশ-রকেটে সরাসরি রেমিট্যান্স আনতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ওমানের মাস্কাট বিমানবন্দরে গাঁজাসহ দুই প্রবাসী গ্রেপ্তার বাড়ি লিখে না দেওয়ায় স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা করল স্ত্রী ওমান উপসাগরে ট্যাংকারে হামলা: অভিযোগ অস্বীকার ইরানের খেলা নিয়ে তর্ক, আর্জেন্টিনার সমর্থককে খুন চোরাচালানের মাধ্যমে প্রতিদিন ২০০ কোটির সোনা আসছে দেশে কাতার রাজপরিবারের সম্পদ দেখে অবাক বিশ্ব মরুর সৌন্দর্যে মুগ্ধ পর্যটকরা, আরব অর্থনীতিতে নতুন সম্ভাবনা বিনা খরচে সরকারীভাবে কর্মী যাচ্ছে মালয়েশিয়া